শনিবার , ২৮ আগস্ট ২০২১ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  1. অনুসন্ধান
  2. অন্যান্য
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আর্ন্তজাতিক
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গণমাধ্যম
  9. জাতীয়
  10. ধর্ম
  11. নারী ও শিশু
  12. প্রবাস
  13. ফিচার
  14. বিনোদন
  15. মতামত

৯/১১ হামলায় লাদেনের জড়িত থাকার কোন প্রমাণ নেই; তালেবান

প্রতিবেদক
দেশ জার্নাল
আগস্ট ২৮, ২০২১ ১২:৪৮ পূর্বাহ্ণ
Desh Journal

 

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

আফগানিস্তানে মার্কিন আগ্রাসনের কোনো ন্যায্যতা নেই বলে দাবি করেছেন তালেবান মুখপাত্র জবিহুল্লাহ মুজাহিদ। কারণ ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলায় ওসামা বিন লাদেনের সম্পৃক্ততার কোনো প্রমাণ নেই।

বুধবার (২৫ আগস্ট) এনবিসি নাইটলি নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এমন দাবি করেছেন। যদিও যুক্তরাষ্ট্রে হামলা চালাতে আল-কায়েদাসহ যে কোনো সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে ব্যবহারের অনুমোদন দেবে না বলে তালেবান প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

ওয়াশিংটন পোস্ট বলছে, হামলায় ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে লাদেনের ভূমিকা থাকার সুষ্পষ্ট প্রমাণ রয়েছে। যে কারণে ২০১১ সালে মার্কিন নেভি সিলের হামলায় নিহত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি ছিলেন বিশ্বের মোস্ট ওয়ান্টেড পলাতক।

জবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, যখন ওসামা বিন লাদেন আমেরিকার একটি সংকটে পরিণত হয়, তখন তিনি আফগানিস্তানে ছিলেন। যদিও তিনি ৯/১১ সন্ত্রাসী হামলায় জড়িত ছিলেন বলে কোনো প্রমাণ নেই। তবে আমরা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে, যে কারো বিরুদ্ধে হামলায় কাউকে আফগান মাটি ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হবে না।

তালেবানের সর্বশেষ ক্ষমতায় থাকাকালে বিন লাদেনের নিরাপদ আশ্রয় ছিল আফগানিস্তান। ১৯৮০-এর দশকে সোভিয়েত ইউনিয়নের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মুজাহিদিনের সঙ্গে তিনিও যুদ্ধ করেছেন। তখনই আল-কায়েদার সন্ত্রাসী নেটওয়ার্ক গঠিত হয়েছিল।

সামরিক কর্মকর্তারা বলছেন, মার্কিন-সমর্থিত আফগান সরকারের পতনের পর আফগানিস্তানে আল-কায়েদার পুনরুত্থান হতে পারে। যদিও ২০০১ সালের পর থেকে আল-কায়েদার নেটওয়ার্ক দুর্বল হয়ে পড়েছে। যোদ্ধারা আফগানিস্তানের ভিতরেই সীমিত হয়ে পড়েছে। গত এপ্রিলে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো জানায়, আল-কায়েদা হামলার ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে এবং বিভিন্ন অঞ্চলের সংঘাতকে নিজেদের সুবিধায় কাজে লাগাতে চেষ্টা করবে।

মার্কিন প্রতিবেদনে বলা হয়, আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের ১৫টিতে আল-কায়েদার উপস্থিতি রয়েছে। যার অধিকাংশই দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় অঞ্চলে। আলকায়েদা ও তালেবানের সম্পর্ক অবিচ্ছন্ন রয়ে গেছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারা দাবি করছে।

জবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, সন্ত্রাসী হামলায় বিন লাদেনের জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ নেই। এমনকি দুই দশকের লড়াই শেষেও আমাদের কাছে কোনো প্রমাণ নেই যে তিনি ৯/১১ সন্ত্রাসী হামলায় জড়িত ছিলেন।

এনবিসি’র রিচার্ড এঞ্জেলের মন্তব্য ছিল–এত কিছুর পরেও আপনারা কোনো দায়িত্ব নিচ্ছেন না? জবাবে তালেবানের মুখপাত্র বলেন, এখানে যুদ্ধের কোনো ন্যায্যতা নেই। এটি ছিল যুদ্ধের অজুহাত।

দেশ জার্নাল /এসএ

আপনার মন্তব্য লিখুন

সর্বশেষ - আইন-আদালত