রায়পুরে ইউপি উপ-নির্বাচন: প্রার্থীদের প্রচারনা শুরু

128

সোহেল আলম:
গত ১৪ জুলাই সুনাধন্য ইউপি চেয়ারম্যান ঢাকার একটি হাসপাতালে করোনায় চিকিৎসাধীনবস্তায় মারা গেছেন। এখনো পরিবার ও স্বজনদের পাশাপাশি দলের নেতা-কর্মীরাও শোকাহত। কিন্তু এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে, কে -কার আগে চেয়ারম্যানের ওই চেয়ারটি দখলে নিবে। নয় মাসে জন্য আগামী উপ-নির্বাচন সামনে রেখে ইউপি সদস্যসহ কয়েকজন প্রার্থীর ভক্ত ও অনুসারীরা ফোনে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সালাম ও শুভেচ্ছা

জানিয়ে-প্রচার-প্রচারনায় করছেন । এছাড়াও ফোনে ও স্ব-শরীরে জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে গিয়ে দোয়া নিচ্ছেন প্রার্থীরা। পাশাপাশি প্রার্থীরা যারযার এলাকায় সচেতন ও সুশীলদের নিয়েও গোপন বৈঠক করছেন এবং দিচ্ছেন উন্নয়নের নানা প্রতিশ্রুতি। আর ভোটাররাও খুঁজছেন যোগ্য প্রার্থী।

উল্লেখ্য, কেরোয়া ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ শাহজাহান কামাল (৬০) করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীনবস্তায় গত ১৪ জুলাই সন্ধায়-ঢাকার ইউনাইটেড মারা যাওয়ায় ইউনিয়নে উপনির্বাচনের জন্য প্রক্রিয়াধীন চলছে। উপনির্বাচনে বিভিন্ন একাধিক প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছেন।

জেলা যুবলীগ’র সাবেক যুগ্ন আহবায়ক ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক বায়েজীদ ভুঁইয়া বলেন, বর্তমান সরকার সুষম উন্নয়নে বিশ্বাস করে। কিন্তু সরকার দলীয় প্রতিনিধি শাহজাহান কামাল ভাই থাকার কারণে উন্নয়ন কাজগুলো বেগবান হচ্ছিল। কিন্তু ভালো মানুষটির মারা যাওয়ায় অনেক ক্ষতি হলো এ বৃহত্তম ইউনিয়নবাসীর। ইউনিয়নবাসী চাইলে নির্বাচন করবো । প্রশাসন নিরপেক্ষভাবে কাজ করবেন। ভোটারও খুঁজছেন সৎ ও যোগ্য প্রার্থী, যারা সুখে দুঃখে তাদের কাছে থাকবেন। তারা বলেন, যাদের মধ্যে দেশপ্রেম আছে তেমন মানুষই প্রতিনিধি হোক। সাধারণ মানুষ ও উন্নয়নের কথা যে প্রার্থী-প্রশাসনের তুলে ধরবে তেমন ব্যক্তিকেই নির্বাচিত করতে চান তারা।

রায়পুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও আ’লীগ সভাপতি অধ্যক্ষ মামুনুর রশীদ বলেন, আগামী নয় মাস পরই পাঁচ বছরের জন্য আবার ইউপি নির্বাচন হবে। করোনায় চেয়ারম্যান মারা যাওয়ায় নয় মাসের জন্য ইউপি উপ-নির্বাচনের জন্য সকল ধরনের প্রস্তুতিও নেয়া শুরু হয়েছে। অনেককেই দেখছি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের অনুসারিদের দিয়ে দোয়া চাচ্ছেন ও খোঁজ নিচ্ছেন।

রায়পুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা দীপক বিশ্বাস.জানান, কেরোয়া ইউপি চেয়ারম্যান মারা যাওয়ার সংবাদ ইউও’র মাধ্যমে জানতে পেরেছি। স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় থেকে পদ শুন্য ঘোষনা ও চিঠি না আসা পর্যন্ত প্রস্তুতি নেয়া যাচ্ছে না। তবে তিন মাসের মধ্যে উপ-নির্বাচন করার নিয়ম রয়েছে। মোট ভোটার ২৭ হাজার ৮৫৫ জন, তার মধ্যে নারী ভোটার ১৩ হাজার ৫৬১ ও পুরুষ ভোটার১৪ হাজার ২৯৪ জন। মোট কেন্দ্র ৮ টি।। ২০১৬ সালে ৫ দফায় ইউপি নির্বাচন সম্পুর্ণ হয়।।।

  •  
    83
    Shares
  • 83
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here