পাগলিটা মা হলো, বাবা হলোনা কেউ

42

দেশ জার্নাল ডেস্ক :
মা হয়েছে, তবে বাবা হয়নি কেউ/পাগলি বলে যায়নি ছেড়ে প্রসব ব্যথার ঢেউ’ জনপ্রিয় একটি কবিতার কয়েকটি চরণের করুণ বাস্তবায়ন হয়েছে শরীয়তপুরে।

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় কন্যা সন্তানের মা হলেন মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারী। এলাকায় তাকে সবাই পাগলি বলেই ডাকে।

দীর্ঘদিন ধরে ভোজেশ্বর বাজারে থাকা চায়না আক্তার (২৫) নামের মানসিক ভারসাম্যহীণ নারীটিকে একটি ফার্মেসীর সামনে প্রসাব বেদনা উঠলে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে অ্যাম্বুল্যান্সে করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে শনিবার দিবাগত রাত ১১টা ৪০ মিনিটে কন্যা সন্তান প্রসব করেন।

যে বা যারা মানসিক ভারসাম্যহীন নারীর সাথে এ অমানবিক কাজ করছে তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নেয়া উচিত বলে মনে করছেন স্থানীয়ারা।

নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সহকারী সবুজ মিঞা বলেন, ভোজেশ্বর বাজারে একটি ফার্মেসীর সামনে প্রসব বেদনা উঠলে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে তার কন্যা শিশুর জন্ম হয়।

সদর হাসপাতালের তত্ববাধয়ক ডা. মুনির আহম্মেদ খান বলেন, ‘গতকাল রাতে নড়িয়া থেকে আমাদের হাসপাতালে একজন ভবঘুরকে নিয়ে আসার পরে রাতে তার একটি কন্যা সন্তানের জন্য হয়। উভয়ই এখন সুস্থ আছে।’

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহবুর রহমান কেষ জানান, ‘আমরা সমাজ সেবার মাধ্যমে তার বাচ্চা সুরক্ষা এবং তাকে চিকিৎসার সব ধরনের ব্যবস্থা করছি।’

সদর উপজেলা সমাজ সেবা প্রমোশন অফিসার তাপস বিশ্বাস জানান, ‘আমরা সমাজ সেবা অধিদপ্তর থেকে বাচ্চা ও তার মায়ের সব ধরণের দায়িত্ব নিয়েছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here