সোমবার , ৩০ আগস্ট ২০২১ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  1. অনুসন্ধান
  2. অন্যান্য
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আর্ন্তজাতিক
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গণমাধ্যম
  9. জাতীয়
  10. ধর্ম
  11. নারী ও শিশু
  12. প্রবাস
  13. ফিচার
  14. বিনোদন
  15. মতামত

তুরস্ক-কাতার যৌথভাবে কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনা করবে

প্রতিবেদক
দেশ জার্নাল
আগস্ট ৩০, ২০২১ ৭:৩৪ পূর্বাহ্ণ
Desh Journal

 

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনা নিয়ে একটি চুক্তির দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে তুরস্ক ও তালেবান কর্তৃপক্ষ। চুক্তির খসড়া অনুযায়ী একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তুরস্ক ও কাতার যৌথভাবে কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটির নিরাপত্তা প্রদান করবে। পাশাপাশি আঙ্কারা তালেবানকে আফগানিস্তানের বৈধ সরকার হিসেবে স্বীকৃতি দেবে।

মিডল ইস্ট আই (এমইই) এর প্রতিবেদনে বলা হয়, আগামী সপ্তাহে আফগানিস্তান থেকে সকল বিদেশি সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহার করে নেয়ার পরপরই চুক্তিটি চূড়ান্ত হবে। তুরস্ক ও কাতার একটি কনসোর্টিয়ামের মাধ্যমে বিমানবন্দরটি পরিচালনা করবে। এক্ষেত্রে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গঠন করা হবে। যেখানে সাবেক তুর্কি সেনা ও পুলিশ সদস্য থাকবেন। চুক্তির আরেকটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে, আফগানিস্তানের বৈধ সরকার হিসেবে তালেবানকে স্বীকৃতি দেবে তুরস্ক। তবে এ চুক্তির ক্ষেত্রে একটি বড় ধরনের সমস্যা রয়ে গেছে। গত বছরের অক্টোবরে সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক কনসোর্টিয়ামকে বিমানবন্দরটির দায়িত্ব দিয়েছিল তৎকালীন ঘানি সরকার। এক্ষেত্রে তালেবানকে আলাদাভাবে তাদের সাথে চুক্তি করতে হবে।

উল্লেখ্য, বিগত কয়েক সপ্তাহ থেকেই তুরস্ক আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনীর প্রত্যাহার শেষ হওয়ার পর কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেয়ার বিষয়ে চেষ্টা চালিয়ে আসছে। তুর্কি স্পেশাল ফোর্সের অতিরিক্ত সদস্য যারা বিমানবন্দরের টেকনিক্যাল খাতে সহায়তা দেয়া তুর্কি কর্মীদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে, তারা সাদা পোশাকে দায়িত্ব পালন করবে এবং বিমানবন্দরের সীমানার বাইরে যেতে পারবে না।

এদিকে আফগানিস্তান থেকে বিভিন্ন দেশের প্রত্যাহার কার্যক্রমের মধ্যেও তুরস্ক কাবুলে দেশটির দূতাবাস খোলা রেখেছে এবং রাষ্ট্রদূতসহ দূতাবাসের মূল কূটনীতিক কর্মীদের এখনো আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নেয়নি। একইসাথে দূতাবাসের নিরাপত্তার জন্য তুর্কি স্পেশাল ফোর্সের সদস্যরাও নিয়োজিত রয়েছে। আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসনের পর ২০০২ সালে ন্যাটোর সদস্য হিসেবে দেশটিতে আসে তুর্কি সৈন্যরা। তবে তুর্কি সৈন্যরা আফগানিস্তানে সরাসরি কোনো যুদ্ধে জড়িত না থেকে বিমানবন্দর ও অন্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানের নিরাপত্তার দায়িত্বেই ছিলো বলে তুরস্কের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

দেশ জার্নাল / এসএ
সূত্র : মিডল ইস্ট আই।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সর্বশেষ - আইন-আদালত

আপনার জন্য নির্বাচিত

গোলমরিচের ৪ স্বাস্থ্য গুণ

রায়পুরে ক্ষতিগ্রস্থ উদ্যোক্তাদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনার ঋনের চেক বিতরণ

৪-১ ব্যবধানে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সবাইকে 

লক্ষ্মীপুরে লকডাউনে কর্মহীন মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন, বাগবাড়ি ক্লাব

লক্ষ্মীপুরে করোনায় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের মৃত্যু

নিবন্ধিত পত্রিকা ৩১৯৫, ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংখ্যা ১০৩টি

লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ নেতাকে হত্যাচেষ্টায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতাসহ আসামি ৯

হারুনুর রশিদকে হত্যার অভিযোগে ৩ দিনের রিমান্ডে আ’লীগ নেতা।

রায়পুর হালিমা (রাঃ) নূরানী ও হাফেজিয়া মাদ্রাসায় শূণ্য পদে শিক্ষক নিয়োগ